সংসদের নারী এমপিদের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু : আ’লীগই পাচ্ছে ৪৩ জন — all-banglanews
বুধবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯
হোম / জাতীয় / সংসদের নারী এমপিদের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু : আ’লীগই পাচ্ছে ৪৩ জন

সংসদের নারী এমপিদের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু : আ’লীগই পাচ্ছে ৪৩ জন

সংসদের নারী এমপিদের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু : আ’লীগই পাচ্ছে ৪৩ জন
সংসদের নারী এমপিদের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু : আ’লীগই পাচ্ছে ৪৩ জন

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের মহাবিজয় পাওয়ার পর এবার একাদশ জাতীয় সংসদের ৫০টি সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আর আগামী সপ্তাহেই সংরক্ষিত নারী আসনে তফসিল ঘোষণা করবে ইসি। এই তথ্য জানিয়ে আজ বৃহস্পতিবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে ইসি সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আগামী সপ্তাহে সংরক্ষিত নারী আসনে তফসিল ঘোষণা করা হবে। এছাড়া মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে ধাপে ধাপে সারাদেশে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শুরু হবে উল্লেখ করে তিনি জানান, আগামী এপ্রিল থেকে প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকদের ভোটার করার কাজ শুরু করা হবে। এক্ষেত্রে প্রথমে পাইলট প্রকল্প হিসেবে সিঙ্গাপুরে যেসব বাংলাদেশীরা থাকেন তাদেরকে ভোটার করা হবে। আগামী ৫ থেকে ৭ দিনের মধ্যে তাদেরকে ভোটার করতে একটি টিম সিঙ্গাপুর যাবে। এরপর দুবাই প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রম শুরু হবে বলেও জানান তিনি।
জাতীয় সংসদের নারী আসনের আইন অনুযায়ী সংরক্ষিত এই ৫০টি আসনের মধ্যে ৪৩টিই পেতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এছাড়া বিরোধী দল জাতীয় পার্টি পাবে ৪টি। আইনে বলা আছে, সংসদের ৩০০ আসনের মধ্যে যে দল যতটি আসন, তার আনুপাতিক হারে ৫০টি আসন দলগুলোর মধ্যে ভাগ করে দেয়া হবে। ফলে এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ যেহেতু ২৫৭টি আসন পেয়েছে সেই হিসাবে তারা নারী আসন পাবে ৪৩টি। আর জাতীয় পার্টির ২২টি আসনের বিপরীতে তারা পাচ্ছে ৪টি নারী আসন। বিএনপির নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্ট পেয়েছে ৮টি আসন। সেই অনুপাতে তারাও পাবে ১টি আসন। আর বাকি ২টি আসন পাবে স্বতন্ত্রসহ অন্য দলগুলো।
প্রচলিত আইন অনুযায়ী, যে দলের অনুকূলে যতটি আসন নির্ধারিত হবে দলগুলো সেই সব আসনপ্রতি এক বা একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন দিতে পারবে। একজন করে প্রার্থী দেয়া হলে ভোটাভুটির প্রয়োজন হবে না। তবে আসনপ্রতি একাধিক প্রার্থী থাকলে দলের সদস্যদের ভোটে একজন নির্বাচিত হবেন। অবশ্য গত ২০০৯ ও ২০১৪ সালে দলগুলো থেকে একের অধিক প্রার্থী দেয়া হয়নি। যে কারণে ভোটাভুটির প্রয়োজন হয়নি।
প্রসঙ্গত গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ২৯৮ আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ২৫৭টি আসন, জাতীয় পার্টি ২২টি, ঐক্যফ্রন্ট ৭টি, বিকল্পধারা বাংলাদেশ ২টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ৩টি, জাসদ ২টি, জাতীয় পার্টি জেপি ১টি ও তরীকত ফেডারেশন ১টি আসন পেয়েছে। এ ছাড়া ৯ জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের ৩টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের পর আসনটিও পেয়েছে বিএনপি।
এদিকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে সংরক্ষিত নারী আসনের ভোট করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এই লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশনও প্রস্তুতি শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন ইসির অতিরিক্ত সচিব মোখলেসুর রহমান। তিনি বলেন, প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি সেরে কমিশন সভায় ভোটের তফসিল ঘোষণার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। পক্ষান্তরে একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশন বসছে আগামী ৩০ জানুয়ারি। কাজ দ্রুত শেষ হলে এই অধিবেশনেই সংরক্ষিত নারী সাংসদরা যোগ দেয়ার সুযোগ পেতে পারেন বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

এবিএনওয়ার্ল্ড/আলিফ

চেক করুন

বিজিএমইএ’র নির্বাচন ৬ এপ্রিল

বিজিএমইএ’র নির্বাচন ৬ এপ্রিল

আগামী ৬ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তৈরি পোশাক উৎপাদক ও রফতানিকারক ব্যবসায়ীদের সংগঠন বিজিএমইএ এর …

অবশেষে জয় পেল খুলনা

অবশেষে জয় পেল খুলনা

প্রথম চার ম্যাচ হারের পর অবশেষে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ আসরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *