স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড — all-banglanews
শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯
হোম / আদালত / স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

বরগুনায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী মো. আমিনুর মাতুব্বরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। আজ বুধবার দুপুরে ওই ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আমিনুর মাতুব্বর বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার তারিকাটা গ্রামের মুজাফফর মাতুব্বরের ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন। অপর আসামি সখিনা বেগমকে খালাস দিয়েছেন আদালত। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল। আসামি পক্ষে ছিলেন কামরুল আহসান মহারাজ।
জানা যায়, ২০০৬ সালের ১৯ মার্চ আলতলী থানায় অভিযোগ দাখিল করেন মামলার বাদী হোসনে আরা বেগম। এ ঘটনার দুই মাস আগে তার মেয়ে শামসুন্নাহার মুক্তার সাথে আমিনুরের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমিনুর মুক্তার কাছে ২০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে নির্যাতন করেন। মুক্তা যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে ২০০৬ সালের ১৮ মার্চ রাত ১১টায় মুক্তাকে মারধর করা হয়। পরে মুক্তাকে গলাটিপে হত্যা করে আমিনুর।
এরপর মুক্তার মরদেহ গোপন করার জন্য বাড়ির দক্ষিণ পাশে খালে ফেলে দেওয়া হয়। তখন আসামিরা পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় রফেজ ও আবদুল হাই চৌকিদার আমিনুরকে আটক করে আমতলী থানায় সোর্পদ করে। পরের দিন বাদী পাঁচজনকে আসামি করে আমতলী থানায় মামলা করেন। আমতলী থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ২০০৬ সালের ৯ এপ্রিল আমিনুর ও তার মা সখিনা বেগমের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।

এবিএন/এফএম

চেক করুন

স্থগিতকৃত উপজেলাগুলোতে ১৮ জুন নির্বাচন

স্থগিতকৃত উপজেলাগুলোতে ১৮ জুন নির্বাচন

বিভিন্ন অনিয়মের কারণে স্থগিতকৃত উপজেলা পরিষদগুলোতে আগামী ১৮ জুন ভোটগ্রহণ করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। স্থগিতকৃত …

মাশরাফির সতর্ক বার্তা

মাশরাফির সতর্ক বার্তা

আসন্ন বিশ্বকাপে দলকে নিয়ে অতিমাত্রায় উচ্চাশা না করতে সমর্থকদের সতর্ক করে দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *