আপনার শিশু ঠিকমতো ঘুমাচ্ছে তো? – ABNWorld
ঢাকা । বুধবার, ৮ এপ্রিল, ২০২০, ২৫শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী
হোম / লাইফস্টাইল / আপনার শিশু ঠিকমতো ঘুমাচ্ছে তো?

আপনার শিশু ঠিকমতো ঘুমাচ্ছে তো?

আপনার শিশু ঠিকমতো ঘুমাচ্ছে তো?

নবজাতকেরা প্রচুর ঘুমিয়ে থাকে। তবে শিশুদের মাঝে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের ঘুমের সমস্যায় ভোগে। বাবা মা পাশে না থাকলে বা পরিবেশ বিনষ্ট হলে রাতে বারবার তাদের ঘুম ভেঙে যায়। বয়স বাড়ার সাথে সাথে এই ঘুমের সমস্যা তাদের মানসিক বিকাশে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। গবেষণায় দেখা গেছে, যে বাচ্চারা কম ঘুমায় তাদের পরবর্তী শৈশব বেশ অনিশ্চয়তায় কাটে এবং তারা মানসিক সমস্যার ঝুঁকিতেও বেশি থাকে।
অস্ট্রেলিয়ান গবেষকরা ১ হাজার ৫০৭ জন মায়ের উপর এ গবেষণা চালায়। তারা সকলেই প্রথমবার মা হয়েছেন। এদের মধ্যে ৫ ভাগের একভাগই জানিয়েছেন, জন্মের প্রথম বছরে তাদের বাচ্চারা তীব্র ঘুমের সমস্যার মধ্যে দিয়ে কাটিয়েছে।
এই গবেষণার প্রধান অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে মারডক চিলড্রেনস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ড. ফেলন কুক বলেন, জন্মের তিন মাসের মধ্যে শিশুরা খুব বেশি ঘুম থেকে জেগে উঠে এবং এটাই স্বাভাবিক । তবে গবেষণায় দেখা যায়, প্রায় ১৯ শতাংশ শিশু স্থায়ী এবং তীব্র ঘুমের সমস্যায় ভুগেছে। ১২ মাস বয়স পর্যন্ত রাতে তিন বা তার অধিক সময় তাদের ঘুম ভেঙে যায়। তখন তাদের ঘুম পাড়াতে ঘন্টা খানেক সময় লেগে যায়।
শিশুদের ঘুমের সমস্যা বছর কয়েক পর মা-বাবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে। শিশুরা যখন আশানুরূপ পড়াশোনা করতে পারে না, স্কুলের সময় ঘুমায়, মাথাব্যথা হয়, মনোযোগে বিঘ্ন ঘটে, মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়, স্কুল থেকে অভিযোগ আসে কিংবা শিশু কথায় কথায় রাগ করা শুরু করে তখন মা- বাবার টনক নড়ে। ততোদিনে বেশ দেরি হয়ে যায়। এই সমস্যা কিন্তু একদিনে গড়ে ওঠেনি। শিশু বয়স থেকে ঘুমের সমস্যার জন্যই এমন হয় বলে দাবি গবেষকদের।
কুক অনলাইনে একে একে প্রতিটি মায়ের সাক্ষাৎকার নেন। মায়েরা তাদের বাচ্চাদের ৩মাস, ৬মাস, ৯মাস ও ১২মাস বয়সকালের ঘুমের জটিলতা তুলে ধরেন। গবেষণায় দেখা যায়, ৫৬ শতাংশ শিশুর মাঝারি আকারে ঘুমের সমস্যা হলেও ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ শিশুর তীব্র ঘুমের সমস্যা হয়। বাচ্চাদের বয়স যখন চার থেকে দশ বছর তাদের তখনকার মানসিক বিকাশ নিয়েও মায়েদের প্রশ্ন করেন কুক। এতে দেখা যায় অধিকাংশ শিশু নানা রকম মানসিক জটিলার মধ্যে দিয়ে গেছে। ১-৫ বছর বয়সের শিশুদের মাঝেও শতকরা ২৫ জন শিশু বিভিন্ন ধরনের ঘুমের সমস্যায় ভোগে।
সমীক্ষায় উঠে এসেছে , ঘুমের সমস্যা যেই শিশুদের তারা বাকি শিশুদের তুলনায় পৃথকীকরণ উদ্বেগ, শারীরিক আঘাতের আশঙ্কায় বেশি ভোগে। এগুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কেননা ঘুমের সমস্যাগুলো এখানে প্রাথমিক সূচক হিসাবে কাজ করেছে। ঘুমের সমস্যার ফলে পরবর্তীতে এই উদ্বেগ ও আশঙ্কাগুলোর উদ্ভব হয়েছে।
ঘুমের সমস্যাগুলো বিভিন্ন মাত্রায়, বিভিন্ন রূপে হলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা চিকিৎসায় ভালো হয়। এজন্য গবেষকরা হেলাফেলা না করে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দেন। বয়স অনুযায়ী প্রতিটি শিশুর দৈনিক কত ঘণ্টা স্বাভাবিক এবং গুণগত মানসম্মত ঘুম প্রয়োজন তা জানা প্রয়োজন।

বয়স অনুযায়ী শিশুর প্রয়োজনীয় ঘুমের সময়-তালিকা

  • ১-৪ সপ্তাহ : ১৬-১৭ ঘণ্টা
  • ১-৪ মাস : ১৪-১৭ ঘণ্টা (রাতে ঘুমের পরিমাণ বাড়তে থাকে)
  • ৪ মাস-১ বছর : ১২-১৬ ঘণ্টা
  • ১-২ বছর : ১১-১৪ ঘণ্টা (রাতেই বেশি ঘুমায়, দিনে অল্প সময়ের জন্য ঘুমায়)
  • ৩-৫ বছর : ১০-১৩ ঘণ্টা
  • ৬-১২ বছর : ৯ -১২ ঘণ্টা
  • ১৩-১৮ বছর : ৮ – ১০ ঘণ্টা

বিশেষজ্ঞদের মতে, ৪ থেকে ৬ মাসের মধ্যে অধিকাংশ শিশুই রাতের বেলা একটানা ৮ থেকে ১২ ঘণ্টা ঘুমানোর ক্ষমতা অর্জন করে। কিছু কিছু শিশু হয়তো মাত্র ৬ সপ্তাহ বয়স থেকেই এই সাফল্য লাভ করে, তবে বেশিরভাগ শিশু এই মাইলফলক স্পর্শ করতে ৫ থেকে ৬ মাস লাগিয়ে ফেলে। আবার, কিছু কিছু শিশু এ সময়ে রাতের বেলা জেগে থাকার ‘বদভ্যাস’ ধরে রাখে। যার ফলে তাদের পরবর্তী শৈশবে মানসিক বিকাশ ব্যহত হওয়ার সম্ভবনা থাকে সবচেয়ে বেশি।

শিশুদের পর্যাপ্ত ঘুমের জন্য করণীয়

  • ঘুমের আগে উষ্ণ গরম পানিয়ে গোসল করানো
  • ঘুমানোর জন্য বিশেষ পোশাক ও ফ্রেশ ন্যাপি পরিয়ে দেয়া
  • দাঁত ব্রাশ করিয়ে দেয়া (যদি দাঁত থাকে )
  • ঘুমানোর নির্দিষ্ট স্থানে শুইয়ে দেয়া (সেটি আরামদায়ক ও সহনশীল তাপমাত্রার হতে হবে)
  • গান শোনানো বা গল্প বলা
  • ঘরের আলো কমিয়ে দেয়া
  • কপালে চুমু খাওয়া বা জড়িয়ে ধরা।

এবিএনওয়ার্ল্ড/এফআর

চেক করুন

শিশুর মানসিক বিকাশে বাধা সৃষ্টির একমাত্র কারণ স্মার্টফোন

শিশুর মানসিক বিকাশে বাধা সৃষ্টির একমাত্র কারণ স্মার্টফোন

শিশুদের মানসিক বিকাশে বাধা সৃষ্টির একমাত্র কারণ মাত্রাতিরিক্ত স্মার্টফোনসহ বিভিন্ন ডিভাইসের ব্যবহার। এসব ডিভাইস শিশু …

জমজ ভাই-বোনের বিয়ে!

জমজ ভাই-বোনের বিয়ে!

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় জমজ ২ ভাইয়ের জমজ ২ বোনের বিয়ে হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনার …