কামাল বারি’র ৫টি কবিতা – ABNWorld
ঢাকা। বুধবার, ৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬; ২০ নভেম্বর, ২০১৯; ২২ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১
হোম / সাহিত্য / কামাল বারি’র ৫টি কবিতা

কামাল বারি’র ৫টি কবিতা

কামাল বারি

হেমন্তের চোখ

জলে জলে সাঁতরায় বৃক্ষছায়া- আয়নায় ছবি;
শুভ্র বালিকার মুখ ভাসে দূরে- দিঘল রোদ্দুরে;
মেঘের শরীরে ফিনফিনে জরিন গরদ শোভা;
খ’সে খ’সে পড়ে কানফুল- কাঁচাঘ্রাণ- ভুর ভুর;
ঢুলু ঢুলু হেমন্তের চোখ- ধানে ধানে ভারাতুর;
চোখের পল্লবে জল- শিশিরদানা জ্ব’লছে সুখে;
বিলের জলে শ্যাওলা ভাসান- মৎস্যগন্ধা প্রাণ;
আহা, এই মৃদু শীতে- গীতে সঙ্গীতে- উঠুক ভরে
জীবন! – এই যে আয়ু- আমাদের পলল ভূমির;
নবান্নের ঘ্রাণে প্রাণ এখানে নিতিই প্রস্ফুটিত।


কেন তবে মেঘ বৃষ্টি জল চাও…

প্রত্যাশিত বৃষ্টির চেয়েও সুন্দর মুখ…
হৃদিক হাসি… কী দ্যাখো ঘাসের
চুম্বন দ’লে? জলরঙ মেঘে কী দ্যাখো?
ঘন কালো মেঘ নেমেছে তোমার
দিঘল চুলে… কেন তবে মেঘ বৃষ্টি
জল চাও লাল অধরের অমৃত সরোবরে?
ত্রি-মরালের যুথবন্ধন আমার সৌরলোকে;
তুমি ফুটেছো সৌরতা রাত… নরম দুপুরে
রোদ… তবু জানি জানি, মঙ্গল দীপাবলি-
জ্ব’লে আছে রাঙা গালে- সমুদ্র দু’চোখে…
অনন্য আলো জ্ব’লে আছে অনাবিল প্রশ্রয়ে।


ঘুমায় একই পাড়ায়

আলো এসে খেলে যায় মুখে
কোলাহল ভেসে আসে
দৃষ্টি স্থির একটি পাখি ঘিরে
আলো ফুটছে- অবিরাম শব্দ-শেকল
পাখিটি ডাকছে অথই তীরে
কোনও এক ভোরের হৃদয় চিঁরে
পাখি গেয়ে যায় গান
সে ঘুমায় একই পাড়ায়
জেগে ওঠে ভিন্ন সময়
আহা, তবু প’ড়ে থাকে
উপসাগরের দূর ওপারে
সেই হাসি মুখ ঘুমায় সুখে
এক সরণির ঘরে
সে এক নদী কলধ্বনিময়
ব’য়ে যায় সবুজ সংকট
বুকে পুষে রোদ।


সময় – সৌরতা

সময়কে ধরতে গিয়ে
ছেড়ে দিয়েছি
সৌরতার শিল্পিত হাতে;
কতখানি স্বৈরিনী সে
দেখা যাবে…
ঠিক এই বোধে-
জমে আছি!


তোমার প্রেরিত স্থিরচিত্র

জরি জড়োয়া লালটিপ জ্বলে
কর্ণলতিকায় দোলে ঝুমকা
আচমকা অলক শোভা কাঁপে
হাতের বালা খেলে বেলুন হাতে
জমিনে শত কারুকার্য শাড়ির-
পাড়জুড়ে সহস্র লীলা
বক্ষবন্ধনী চুম্বক-চুম্বন-চুমুরে
রঙ আর মন মেশানো পোশাক
ভাবমেশানো সোহাগী গতরজুড়ে।


কবি-পরিচিতি :

জন্ম : ১৮ জানুয়ারি, ১৯৬৫; প্যারিদাশ রোড, ঢাকা।
পৈতৃক নিবাস : ডাঙ্গারপাড়, ভাঙ্গা, ফরিদপুর।
বাবা : বারি।
মা : জহুরা।
নব্বইয়ের দশকে কবিতা লেখা শুরু। লেখা হচ্ছে। তবে প্রকাশ নেই বললেই চলে।
কবিতা ছাড়াও লিখছেন- গল্প, গান, প্রবন্ধ, নাটক ইত্যাদি।
বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ক্রিয়েটিভ ফিচার ও রিপোর্ট লিখে থাকেন মাঝে মাঝে।
আজও একক কোনও গ্রন্থ প্রকাশিত হয়নি।
সময় সময় সাহিত্যপত্রিকা সম্পাদনা ও প্রকাশে ব্যস্ত থাকেন।
পেশা : সাংবাদিকতা।
নেশা : কবিতা।

— :: —

চেক করুন

বৃক্ষ, না আমি!

বৃক্ষ, না আমি!

বৃক্ষ, না আমি! ইউসুফ শরীফ . জানালার পাশে আমার সমান-বয়েসি বৃক্ষটি ঝিম-ধরা বিকেলে শোনায় তার …

ফেসবুক : সোহেল হায়দা চৌধুরী

ফেসবুক

ফেসবুক সোহেল হায়দা চৌধুরী কেউ কেউ ফেসবুকে বুলি দেন সদা, কেউবা কাজ নিয়ে ব্যস্ত সর্বদা। …