সিনহা হত্যা মামলা : ওসি প্রদীপসহ ৩ পুলিশ র‌্যাবের রিমান্ডে – ABNWorld
ঢাকা । মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪২ হিজরি
হোম / অপরাধ / সিনহা হত্যা মামলা : ওসি প্রদীপসহ ৩ পুলিশ র‌্যাবের রিমান্ডে

সিনহা হত্যা মামলা : ওসি প্রদীপসহ ৩ পুলিশ র‌্যাবের রিমান্ডে

সিনহা হত্যা মামলা : ওসি প্রদীপসহ ৩ পুলিশ র‌্যাবের রিমান্ডে

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা (মেজর) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় ৩ জনকে র‌্যাপিড একশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। তারা হলেন- টেকনাফ থানার সদ্যসাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ ও ইন্সপেক্ট লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিত। তাদেরকে ৭ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। কারাগারে পাঠানো বাকি ৪ আসামীকে জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার রাতে কক্সবাজারের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন এই আদেশ দেন। এর আগে কক্সবাজারের র‌্যাব’র (র‌্যাব- ১৫) কমান্ডার ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আজিম আহমেদ পলাতক দুজন বাদে বাকি ৭ আসামীর প্রত্যেককে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন।
ওই মামলায় আত্মসমর্পণ করা বাকি ৪ আসামী কনস্টেবল সাফানুর করিম, কামাল হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং এএসআই লিটন মিয়াকে ২ দিন জেল গেইটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত। মামলার বাকি ২ আসামি এসআই টুটুল ও কনস্টেবল মো. মোস্তফা এখনও পলাতক। তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আদেশ দিয়েছেন আদালত। তাদের সকলকে আগেই প্রত্যাহার করা হয়েছে।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরের পর মামলার দ্বিতীয় আসামী টেকনাফ থানার প্রত্যাহারকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ হেডকোয়ার্টার হাসপাতালে চিকিৎসার কথা বলে গাড়ি নিয়ে এলে তাকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। সেখান থেকে তাকে নিয়ে দুপুর ২টার দিকে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় পুলিশ। এরপর বিকাল ৫টার দিকে তাকে আদালতে তোলা হয়।
প্রসঙ্গত গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব:) সিনহা রাশেদ খান। এই ঘটনায় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে প্রধান করে একটি উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন ও নিরাপত্তা বিভাগ। একইভাবে তদন্তের স্বার্থে টেকনাফের বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ লিয়াকত আলিসহ ১৬ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।
গত বুধবার দুপুরে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৯ পুলিশ সদস্যকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন মেজর সিনহার বড়বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। পরে মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে টেকনাফ থানার ওসিকে এজাহারের ধারা অনুযায়ী হত্যা মামলা হিসেবে রেকর্ড করার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি মামলাটি রেকর্ড করে ৭ দিনের মধ্যে আদালতকে অবগত করার আদেশও দেন আদালত। মামলা রেকর্ডের পর কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ ব্যাটালিয়নের কমান্ডার আজিম আহমেদকে তদন্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এবিএনওয়ার্ল্ড/আকরাম

চেক করুন

বাংলাদেশ-ভারত জেসিসির বৈঠক আজ

বাংলাদেশ-ভারত জেসিসির বৈঠক আজ

বাংলাদেশ-ভারত যৌথ পরামর্শক কমিশন (জেসিসি)’র আজ মঙ্গলবারের বৈঠকের আলোচনায় রোহিঙ্গা সংকট, অভিন্ন নদীর পানির হিস্যা, …

কাপড় ছাড়া গোসল করা কী জায়েজ?

কাপড় ছাড়া গোসল করা কী জায়েজ?

দেশের বেসরকারি একটি টেলিভিশনের সরাসরি ইসলাম নিয়ে প্রশ্নোত্তরমূলক বিশেষ অনুষ্ঠান ‘শরিফ মেটাল প্রশ্ন করুন’। এ …