সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা লণ্ডভণ্ড – ABNWorld
ঢাকা । সোমবার, ১ জুন, ২০২০, ১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
হোম / আন্তর্জাতিক / সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা লণ্ডভণ্ড

সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা লণ্ডভণ্ড

সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা লণ্ডভণ্ড

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট সুপার সাইক্লোন বা প্রবল শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। প্রবল শক্তিশালী এই ঝড়ের দাপট কলকাতায় তৈরি করেছে বিভীষিকা। বুধবার সকাল থেকেই নগরীতে বইতে শুরু করে দমকা হাওয়া। বেলা গড়াবার সাথে সাথে ঝড়ো হাওয়ার বেগ বেড়ে যায়। সেই সাথে শুরু হয় বৃষ্টি। এদিকে আজ বিকেল ৪টার দিকে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ উপকূলে আছড়ে পড়ে সুপার সাইক্লোন আমফান। অন্ধকার হয়ে আসে আকাশ, তুমুল ঝড়ে বইতে শুরু করে শহরের একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত। বেশ কিছু এলাকায় গাছপালা দুমড়ে মুচড়ে উপড়ে ফেলেছে শক্তিশালী ঝড়টি।
ভারতের আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানায়, কলকাতায় বয়ে যাওয়া ঝড়ের গতিবেগ ৯৬ কিলোমিটার থেকে ১০৫ কিলোমিটার। সন্ধায়ে ঝড়ের গতিবেগ আরও বাড়বে। এটি আরও ৪ ঘণ্টা পশ্চিমবঙ্গে দক্ষিণাংশে তাণ্ডব চালাতে পারে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে ঝড়ের তাণ্ডব কমে যাবে। সুন্দরবন উপকূল ধরে এটি বাংলাদেশের স্থলভাগ অতিক্রম করবে।
এদিকে ঝড়ের গতিবেগ বাড়ার সাথে সাথে উত্তর থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম সর্বত্রই একের পর এক গাছ ভেঙে পড়ার খবর আসতে শুরু করে কলকাতা পৌরসভার কন্ট্রোলরুমে। পার্ক স্টিট, থিয়েটার রোড, সাদার্ন এভিনিউ, রেড রোড কলকাতা ময়দান, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল-এর সামনে, ইডেন গার্ডেন্সের সামনে, ক্যামাক স্ট্রীট, গড়িয়াহাট, কসবা, পাইকপাড়া, টালা, বাগমারী, খিদিরপুর সর্বোচ্চ একের পর এক গাছ ভেঙে পড়ার খবর আসতে থাকে। ক্যামাক স্ট্রীট, বিবিডি বাগ, পাইকপাড়া এলাকায় গাছ ভেঙে পড়ে ৩টি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
কলকাতার এই বিপর্যয় মোকাবিলায় পুরসভার কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে যাচ্ছে এবং বিভিন্ন জায়গায় গাছ কেটে রাস্তা পরিষ্কার করার চেষ্টা করছে। কলকাতা পুলিশের কর্মীরাও বেশ কিছু জায়গায় পৌঁছে দিয়ে গাছকেটে বাঁশরী এ রাস্তা পরিষ্কার করতে নেমেছে। বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে কলকাতা শহরে কোন ব্যক্তির দুর্ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। সকাল থেকেই কলকাতা পুরসভা এবং কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বত্রই মাইকে ঘোষণা করা হয় যাতে বেলা বারোটার পর কেউ রাস্তায় না বেরোয়।
একদিকে করোনাভাইরাসের আতঙ্ক গত দুমাস ধরে তাড়া করে বেড়াচ্ছিল সবাইকেই। আর তার মাঝেই মূর্তিমান বিভীষিকার মত এসে পৌঁছাল আমফান ঘূর্ণিঝড়। আর এই ঘূর্ণিঝড় দেখিয়ে দিল মানুষ কতটা অসহায়। বেলা বাড়ার সাথে সাথেই বৃষ্টির দাপট যেমন বাড়তে শুরু করল, তেমন ভাবেই ঝড় শুরু হতে লাগল।

এবিএনওয়ার্ল্ড/নওরতন

চেক করুন

অভ্যন্তরীণ রুটে আজ থেকে পুণরায় বিমান চলাচল শুরু

অভ্যন্তরীণ রুটে আজ থেকে পুণরায় বিমান চলাচল শুরু

বিশ্বব্যাপী মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ (করোনা ভাইরাস)-এর কারণে বিগত ২ মাসেরও বেশি সময় …

২ মাস পরে আল আকসা মসজিদের দরোজা খুলে দেয়া হল আজ

২ মাস পরে আল আকসা মসজিদের দরোজা খুলে দেয়া হল আজ

করোনা ভাইরাসের কারণে ২ মাসের বেশী সময় বন্ধ থাকার পরে মুসলমানদের অন্যতম পবিত্র স্থান আল …