সেহরি-ইফতার-তারাবীর নিয়ত : দোয়া ও মোনাজাত – ABNWorld
ঢাকা । শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০, ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
হোম / ঈমান-আমল / সেহরি-ইফতার-তারাবীর নিয়ত : দোয়া ও মোনাজাত

সেহরি-ইফতার-তারাবীর নিয়ত : দোয়া ও মোনাজাত

পবিত্র মাহে রমজান
পবিত্র মাহে রমজান

চলছে পবিত্র মাহে রমজান মাসের মাগফেরাত অধ্যায় অর্থাৎ দ্বিতীয় ১০ রোজা। রোজার মাসে সেহেরি করার পর রোজা রাখার নিয়ত করে রাখা হয়। এবং সন্ধ্যায় রোজা খোলার নিয়ত করে ইফতার করা হয়। যদিও রোজা ও ইফতারের দোয়া অনেকেই জানেন, তার পরেও আরো একবার ভালো ভাবে দেখে নিন।

বাংলা উচ্চারণ:- নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিং শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আংতাস সামীউল আলীম।
রোজার বাংলা নিয়ত:- আয় আল্লাহ পাক! আপনার সন্তুষ্টির জন্য আগামীকালের রমাদ্বান শরীফ-এর ফরয রোযা রাখার নিয়ত করছি। আমার তরফ থেকে আপনি তা কবুল করুন। নিশ্চয়ই আপনি সর্বশ্রোতা , সর্বজ্ঞাত।

বাংলা উচ্চারণ:- আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া তাওয়াক্কালতু আ’লা রিজক্বিকা ওয়া আপ্তারতু বি রাহমাতিকা ইয়া আর্ হামার রা-হিমীন।
ইপ্তারের বাংলা দোয়া:- হে আল্লাহ তায়ালা আমি আপনার নির্দেশিত মাহে রমাজানের ফরয রোজা শেষে আপনারই নির্দেশিত আইন মেনেই রোজার পরিসমাপ্তি করছি ও রহমতের আশা নিয়ে ইপ্তার আরম্ভ করিতেছি। তারপর ‘বিসমিল্লাহি ওয়া’আলা বারাকাতিল্লাহ’ বলে ইপ্তার করা।

এশার নামাজের ৪ রাকাত ফরজ ও ২ রাকাত সুন্নতের পর এবং বিতর নামাজের আগে দুই রাকাত করে ১০ নিয়তে ২০ রাকাত তারাবি নামাজ আদায় করা হয়। তারাবি নামাজ জামাতের সাথে আদায় করা ও কোরআন শরিফ খতম করা অধিক সওয়াবের কাজ। রাসুলুল্লাহ (সা.) তারাবি নামাজের জন্য রাতের কোনো বিশেষ সময়কে নির্দিষ্ট করে দেননি। তবে তারাবি নামাজ অবশ্যই এশার নামাজের পর থেকে সুবহে সাদিকের পূর্ববর্তী সময়ের মধ্যে আদায় করতে হবে।

তারাবি নামাজের নিয়তের বাংলা উচ্চারণ:- (নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’আলা, রকাআতাই সালাতিত তারাবিহ সুন্নাতু রাসুলিল্লাহি তা’আলা, মুতাওয়াজ্জিহান ইলা জিহাতিল কা’বাতিশ শারিফাতি, আল্লাহু আকবার।)

অর্থ: আমি ক্বিবলামুখি হয়ে দু’রাকাআত তারাবিহ সুন্নতে মুয়াক্কাদাহ নামাজের নিয়ত করছি। আল্লাহু আকবার।

তারাবি ৪ রাকাত নামাজের পরপর এই দোয়া পাঠ করতে হয়:-

বাংলায়: (সুবহানা জিলমুলকি ওয়াল মালাকুতি সুবহানা জিল-ইজ্জাতি ওয়াল আজমাতি ওয়াল হায়বাতি ওয়াল কুদরাতি ওয়াল কিবরিয়ায়ি ওয়াল জাবারুতি সুবহানাল মালিকিল হাইয়্যিল্লাজি লা ইয়ানামু ওয়ালা ইয়ামুতু আবাদান আবাদান সুব্বুহুন কুদ্দুসুন রাব্বানা ওয়া রাব্বুল মালা-ইকাতি ওয়াররুহ।)
(প্রত্যেক ৪ রাকয়াত নামাযের পর এই মোনাজাত পড়িতে হইবে।)

তারাবি নামাজের মোনাজাত:
বাংলায়: (আল্লা-হুম্মা ইন্না নাস আলুকাল্ জান্নাতা ওয়া নাউজুবিকা মিনান্নারি ইয়া খালিকাল জান্নাতা ওয়ান্নারি বিরাহমাতিকা ইয়া আজীজু, ইয়া গাফ্ফারু, ইয়া কারীমু, ইয়া সাত্তারু, ইয়া রাহিমু ,ইয়া জাব্বারু ইয়া খালেকু, ইয়া রাররূ, আল্লাহুমা আজির না মিনান্নারি, ইয়া মূজিরু ইয়া মুজিরু, বিরাহ্মাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমীন।)
অবশ্য মহানবী (সা.) শবে কদরের রাতে নিম্নোক্ত দোয়াটি পড়তেন এবং পড়ার জন্য সবাইকে বলতেন। তবে শবে কদরের রাত ছাড়াও এই দোয়াটি পড়লে অনেক সওয়াব হাসিল করার সুযোগ রয়েছে।
দোয়াটি হলো- আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুব্বুন তুহিব্বুল আফওয়া ফাঅফু আন্নি।

এবিএন/এফএম

চেক করুন

অবশেষে খুলে দেয়া হচ্ছে মক্কার সব মসজিদের দরজা

অবশেষে খুলে দেয়া হচ্ছে মক্কার সব মসজিদের দরজা

অবশেষে খুলে দেয়া হচ্ছে মক্কার সব মসজিদের দরজা। দীর্ঘ ৩ মাস পর আগামীকাল রবিবার ফজর …

সামনেই কোরবানি ঈদ : এবার ঢাকায় বসছে ২৪টি পশুর হাট

সামনেই কোরবানি ঈদ : এবার ঢাকায় বসছে ২৪টি পশুর হাট

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যেই বাঙালী মুসলমানদে দুয়ারে কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদ-উল …